সরকারের সাথে জামাতের সমঝোতা? | sampadona bangla news
শনিবার , ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সরকারের সাথে জামাতের সমঝোতা?

হাসিনা ও মন্ত্রীজামাত নেতাদেরসম্পাদনা: অনলাইন। জামায়াতকে নিয়ে গভীর উদ্বেগে বিএনপি। আর এই উদ্বেগের বিষয়টি বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ১৯ দলীয় জোট নেতা বেগম খালেদা জিয়া নিজেই প্রকাশ করেছেন। আওয়ামী লীগের সঙ্গে জামায়াতের গোপন সমঝোতা হচ্ছে- এমন খবরে বেগম খালেদা জিয়া উদ্বেগ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগের ফাঁদে পা না দিতে জামায়াত নেতাদের সতর্ক করেছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে জোট নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বেগম খালেদা জিয়া উপস্থিত জামায়াত নেতাকে বলেছেন, আওয়ামী লীগ আপনাদের ছাড় দেবে না। তারা অনেক ষড়যন্ত্র করবে। বিশেষ করে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত নেতাদের বিষয়ে। তাই এমন কিছু করবেন না যাতে আপনারা বিছিন্ন হয়ে যান। বৈঠকে বিএনপি নেত্রী উপস্থিত জামায়াত নেতার কাছে বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের দলের অবস্থান জানতে চান। এসময় মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর মাওলানা আবদুল হালিম জানান, নির্বাচনের আগে নানা সমস্যার কারণে সব সময় যোগাযোগ রাখা সম্ভব হয়নি। আমরা সমস্যা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি। আমরা জোটের সঙ্গে আছে। ভবিষ্যতেও এ জোট অটুট থাকবে।
রাজনৈতিক মহলে আবারো গুঞ্জন উঠেছে সরকারের সঙ্গে জামায়াতের সমঝোতার চেষ্টা চলছে। দলটির নায়েবে আমীর মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আপিল বিভাগের রায়কে ঘিরেই এমন গুঞ্জন উঠেছে। বর্তমানে মিডিয়ার সঙ্গে জামায়াত নেতারা যোগাযোগ না রাখা এবং তাদের রাজনৈতিক ময়দানেও তাদের নীরবতা এ গুজব-গুঞ্জনের ডালপালা বিস্তৃত করছে। জোটের প্রধান শরিক বিএনপিও অনেকটা অস্বস্তি বোধ করছে এই গুঞ্জনে। সরকারও এ বিষয়ে কোনো কথা বলছে না। গণজাগরণ মঞ্চকে ভেঙ্গে দেয়ার পেছনে হেফাজত ও জামায়াতের সঙ্গে সমঝোতার বিষয়টি জনমনে সন্দেহ সৃষ্টির কারণ হিসেবে অনেকে মনে করছেন। বিশেষ করে হেফাজতের সঙ্গে সমঝোতার পরেই গণজাগরণ মঞ্চ থেকে ইমরান এইচ সরকারকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে সংবাদপত্রে অসংখ্য প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে। সূত্র জানাচ্ছে, মাওলানা সাঈদীর বিষয়টি নিয়ে গণজাগরণ মঞ্চ যাতে ‘বাড়াবাড়ি’ না করতে পারে সে কারণেই সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে। আর এতে করে জামায়াতের সঙ্গে সমঝোতার পথটি সুগম হতে পারে এমনটাই সচেতন মহলের ধারণা।
রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা সম্ভাব্য মধ্যবর্তী নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক ময়দানে পর্দার অন্তরালে নানান খেলা চলছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ অতিগোপনে অভিযুক্ত জামায়াতের সঙ্গে সমঝোতার চেষ্টা করছে বলেও অনেকের ধারণা। আর এতে সরকার বিদেশী মিত্রের সহায়তা নিচ্ছে। জামায়াতকে ‘ম্যানেজ’ করতে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। আর জামায়াতের পক্ষে কাজ করছেন দলটির সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক। তিনি এখন দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। সমঝোতা না হওয়া পর্যন্ত তিনি দেশে ফিরছেন না বলেও একটি সূত্র জানিয়েছে।

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*