শোকসভায় গিয়ে হাসি, ট্রোলড হলেন অভিষেক | sampadona bangla news
বুধবার , ১৫ আগস্ট ২০১৮

শোকসভায় গিয়ে হাসি, ট্রোলড হলেন অভিষেক

সম্পাদনা অনলাইন : গত রবিবার রাতে প্রয়াত হয়েছেন ব্যবসায়ী রঞ্জন নন্দা। সম্পর্কে তিনি শ্বেতা বচ্চন নন্দার শ্বশুর। রঞ্জনের প্রয়াণের খবরে বুলগেরিয়া থেকে শুটিং বাতিল করে তড়িঘড়ি ভারতে ফিরে এসেছিলেন অমিতাভ। গত ৭ অগস্ট রঞ্জনের শোকসভায় উপস্থিত ছিলেন বচ্চন পরিবারের সকলেই। সেখানেই ট্রোল়ড হতে হল অভিষেক বচ্চনকে।

গত ৭ অগস্ট দিল্লিতে রঞ্জনের শোকসভার আয়োজন করা হয়। অমিতাভ, জয়া, অভিষেক, ঐশ্বর্যা, রঞ্জনের পুত্র নিখিল নন্দা, পুত্রবধূ শ্বেতা ছাড়াও বলি মহলের একাধিক তারকা উপস্থিত ছিলেন। সেই অনুষ্ঠানেই অভিষেকের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে হাসতে দেখা গিয়েছে অভিনেতাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি ছড়িয়ে পড়তেই ট্রোল়ড হতে হয় তাঁকে।

কেউ লিখেছেন, ‘এটা কি কোনও পার্টি না শোকসভা?’ কারও মত, ‘দেখে তো মনে হচ্ছে হাইস্কুলের রিইউনিয়ন।’ যদিও এই ট্রোলিংয়ের জবাবে এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি অভিষেক।রঞ্জন ছিলেন রাজ কপূরের জামাই। ঋষি কপূরের বোন ঋতু নন্দার স্বামী। তাঁর প্রয়াণের খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রথম জানিয়েছিলেন ঋষি কপূরের মেয়ে ঋদ্ধিমা কপূর সাইনি। তাঁর শোকসভায় কপূর পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু অভিষেকের মতো কাউকেই ট্রোলড হতে হয়নি।
বিকিনি পরার জন্য দীপিকা পাড়ুকোন, প্রিয়ঙ্কা চোপড়া, সোনম কপূর, ফতিমা সানা শেখের মতো তারকাদের ট্রোলড হতে হয়েছে। কখনও বা গায়ের রং নিয়ে ট্রোলিংয়ের শিকার হয়েছেন তারকারা। কখনও আবার সাফল্যের জন্য ট্রোলড হয়েছেন সুহানা খানের মতো স্টার কিডরা। বলা হয়েছে, সাফল্য এসেছে নাকি স্টার কিড বলেই। ফলে ট্রোলিং কোনও নতুন ঘটনা নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের মত প্রকাশের স্বাধীনতা রয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, সে কারণেই কি যে কোনও সময় রূপোলি দুনিয়ার মানুষদের টার্গেট করা সঙ্গত?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*