নাব্যতা সংকটে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ফেরি চলাচল বন্ধ | sampadona bangla news
রবিবার , ১৯ আগস্ট ২০১৮

নাব্যতা সংকটে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ফেরি চলাচল বন্ধ

সম্পাদনা অনলাইন : দক্ষিণবঙ্গের ২১টি জেলার প্রবেশদ্বার মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। দ্বিতীয় দফায় গতকাল রোববার রাত ১২টা থেকে পদ্মা নদীর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে বিপাকে পড়েছেন এই নৌরুটের যাত্রীরা। পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ছয় শতাধিক ছোট-বড় যানবাহন।

ফেরি চলাচলের জন্য উপযোগী পানির গভীরতা না থাকায় সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন ফেরি চালকরা। এর আগে গত শনিবার বিকেল ৫টার দিকে লৌহজং চ্যানেলে নাব্যতা সংকোটের কারণে ফেরি বন্ধ রাখা হয়। এরপর রাত ১০টার দিকে ৪টি কে-টাইপ ফেরি চলাচল করে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক গিয়াস উদ্দিন পাটোয়ারী জানান, বিকল্প চ্যানেলে পানির গভীরতা আছে চার-পাঁচ ফুটের মতো। কিন্তু ফেরি চালাতে প্রয়োজন সাড়ে সাত ফুটের মতো। ১২ জুন থেকে ব্যবহার করে আসা এই চ্যানেলটিতে বর্তমানে পলি জমে নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে। এর কারণে আগের সরাসরি মূল চ্যানেল দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। এ ছাড়া পণ্যবাহী ট্রাক ও ভারী যানবাহনগুলোকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাট ব্যবহারের কথা বলা হয়েছে। এরপরও ঘাট এলাকায় ৬০০ যানবাহন পারের অপেক্ষায় আছে।

ঘাট ব্যবস্থাপক আরো জানান, নাব্যতা সংকট নিরসনে ড্রেজিং চলছে চ্যানেলে। দুই দিন সময় নেওয়া হয়েছে ফেরি চলাচল উপযোগী করতে।

নির্বাহী প্রকৌশলী (ড্রেজিং) এ এস এম আরেফিন জানান, বিকল্প চ্যানেল ছাড়াও সরাসরি মূল চ্যানেলেও সাতটি ড্রেজার কাজ করছে। দুটি রুট দিয়ে ফেরি চলাচল করছে। পলি অপসারণ করা হলেও চ্যানেলের মুখে কেটে সরানো যাচ্ছে না। ড্রেজিং করে ১৩ ফুট করলেও আশপাশে থেকে ভেঙে পড়ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*