তাকওয়া অবলম্বনে লাভ | sampadona bangla news
বুধবার , ১৫ আগস্ট ২০১৮

তাকওয়া অবলম্বনে লাভ

মসজিদে নববীসা’দী: তাকওয়া অবলম্বনের উপকার বুঝতে পবিত্র কুরআনের গভীর পর্যালোচননা করা দরকার। তা হলেই বুঝতে পারবে যে, তাকওয়ার সঙ্গে অ্লাহ্ কত কল্যাণ ও মঙ্গল রেখে দিয়েছেন এবং তার পুরস্কার হিসেবে কত রকমের সৌভাগ্যেরই না ওয়াদা করেছেন। তাকওয়ার পুরিস্কার অসংখ্য, সওয়াব সীমাহীন। এখানে তার অসংখ্য বৈশিষ্টের মধ্যে মাত্র ১২টি বিষয় উল্লেখ করা হলো।

প্রশংসা ও গুণকীর্তনের গুণাবলী। আল্লাহ বলেন, “যদি সব করো এবং ‘তাকওয়া’ অবলম্বন করো; তবে তা (সত্যিই) অতি সাহসের কাজ হবে। (সূরা আলে ইমরান: ১৮৬)

আল্লাহর রক্ষণাবেক্ষণ ও তত্বাবধানের নিশ্চয়তা বিধান সম্বলিত। আল্লহ বলেন, যদি তুমি ধৈর্য ও তাকওয়া অবলম্বন করো; তবে তাদের কোন কৌশলই তোমার সামান্যতম ক্ষতি করতে পারবে না (সূরা আলে ইমরান: ১২০)

যাহায্য ও সহানুভুতির আশ্বাসে পরিপূর্ণ। আল্লা বলেন, আল্লা নিশ্চয়েই তাদের সঙ্গে আছেন, যারা ‘তাকওয়া’ অনুশীলণ করে এবং সৎ কর্মপরায়ণ। (নূরা নাহল: ১২৮)। তিনি আরও বলেন আল্লহ তাকওয়া অবলম্বনকারীদের অভিভাবক।

হালাল রুজি দান ও সকল প্রাকার ক্লেশ থেকে মুক্তির আশ্বাস। যেমন আল্লাহ বলেন, আল্লাহর প্রতি যে রাখে (তাকওয়া অবলম্বন করে) অাল।লাহ তার জন্য একটা ব্যবস্থা বের কে দেবেন। এবং যা তার ধারণার বাইরে, এমন স্থ থেকে তার জন্য রিযিক দান করবেন। (সূরা তালাক:২৩)।

আমলের সংরক্ষণের পরিপূর্ণ প্রতিশ্রুতি। যেমন অ্লাহ বলেন, হে ঈমানদাররা। আল্লাহকে ভয় করো এবং সত্য কথা বলো-আল্লাহ তার পুরস্কার হিসেবে তোমাদো আমলসমুহকে এসলাহ করবেন। (সূরা আহযাব:৭০)।

গুনাহ মাফ ও ক্ষমা প্রদর্শনের প্রতিশ্রুতি সম্বলিত। যেমন আল্লহ্ বলেন, তোমাদের গুনহ খাতা ক্ষমা করবেন। (সূরা আলে ইমরা : ৩১)

আল্লাহর ভালবাসার নিশ্চয়তা-যেমন পবিত্র কুরআনে বলা হয়েছে, নিঃসন্দেহে আল্লাহ ‘তাকওয়া’ অবলম্বনকারীদের ভাববাসবেন (সূরা তাওবা :৪)।

আল্লাহ তাকওয়া অবলম্বনকারীদের থেকে কবুল করেন সূরা মায়িদা:২৭)

সম্মান ও ইজ্জত দানের নিশ্চয়তা : যেমন পবিত্র কুরআনে ঘোষণা করা হয়েছে, নিঃসন্দেহে আল্লাহর কাছে তোমাদের মধ্যে সেই ব্যক্তি সম্মানিত, যে তোমাদের সবচাইতে বেশ িমুত্তাকী (তাকওয়া অবলম্বনকারী) (সূরা হুজুরাত:১৩)

মৃত্যুর সময় শুভ সংবাদ:  আল্লাহ বলেন, যে লোক ঈমান এনেছে এবং তাকওয়া অবলম্বন করেছে, তার জন্য দুনিয়া ও আখিরাতের জীবনে সুসংবাদ রয়েছে। (সূরা ইউনুস : ৬৩)

দোযখ থেকে মুক্তির অন্দপূর্ণ সংবাদ। আল্লাহ বলেন, অতঃপর আমি তা থেকে ‘তাকওয়া’ অবলম্বনকারীদের বাঁচিয়ে নেবো। তিনি আরও বলেন, তাকওয়া অবলম্বনকারী ব্যক্তিদের এ (দোযখ) থেকে দুরে রাখা হবে।

চিরন্তন বেহেশতে অবস্থানের শুভ সংবাদ ও তার সুস্পষ্ট ঘোষণা, ‘তাকওয়া’ অবলম্বনকারীদের জন্য (জান্নাত) প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। (ইমাম গাযযালী (র.) রচনা থেকে)

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*