তফসিলের প্রস্তাব নিয়ে বঙ্গভবনে যাচ্ছে ইসি | sampadona bangla news
সোমবার , ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮

তফসিলের প্রস্তাব নিয়ে বঙ্গভবনে যাচ্ছে ইসি

সম্পাদনা অনলাইন : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিলের প্রস্তাবনা নিয়ে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের সঙ্গে শিগিগির দেখা করতে যাচ্ছে কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যর নির্বাচন কমিশন। সাক্ষাতের সময় চেয়ে ইতিমধ্যে ইসি সচিবালয় থেকে বঙ্গভবনে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তবে এখনো সাক্ষাতের সময়সূচি চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন ইসি সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মোখলেছুর রহমান। তিনি ইত্তেফাককে বলেন, আগামী ২৮ থেকে ৩০ অক্টোবরের মধ্যে সময় চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। আশা করছি দু’-একদিনের মধ্যে সময়সূচি পেয়ে যাবো। তিনি বলেন, সাধারণত জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে প্রতিটি কমিশনই রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করে। এরই ধারাবাহিকতায় এবারের সাক্ষাত্।
সর্বশেষ দশম সংসদ নির্বাচনের আগে তত্কালীন সিইসির নেতৃত্বে ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত্ হয়। তার এক সপ্তাহের মাথায় ২৫ নভেম্বর ভোটের তফসিল ঘোষণা করা হয়। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতে তফসিল ও নির্বাচনের সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা প্রস্তাবণা নিয়ে আলোচনা হয়। রেওয়াজ অনুযায়ী এরপরই কমিশন সভা আহ্বান করে তফসিল ঘোষণা করে।
ইসি সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনের প্রস্তুতিমূলক কাজ অনেকটা শেষ পর্যায়ে নিয়ে এসেছে ইসি সচিবালয়। সামনের দিনগুলোতে কী ধরনের কাজ কখন করা হবে সেটির একটি কর্মপরিকল্পনাও চূড়ান্ত করা হয়েছে। আগামী ১৫ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় কমিশনের সভায় এসব প্রস্তুতিমূলক কাজের অগ্রগতি তুলে ধরা হবে। ওই বৈঠকে আগামী সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে কী না-সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। আগামী কমিশন বৈঠকে তফসিল ও ভোটের তারিখ নির্ধারণ নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হবে না বলে জানিয়েছেন ইসির অতিরিক্ত সচিব। তিনি বলেন, নির্বাচনের প্রস্তুতির বিষয় কমিশনকে অবগত করা হবে। এরপর আরেকটি কমিশন সভায় নির্বাচনের তফসিল ও ভোটের তারিখ চূড়ান্ত করা হবে। এদিকে রেওয়াজ অনুযায়ী সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সময়ে এবারও ভাষণ দেবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি)। সিইসির ভাষণের খসড়া তৈরি করেছে ইসি সচিবালয়। এখন ওই ভাষণ সিইসি নিজেই চূড়ান্ত করছেন। ওই ভাষণের খসড়ায় সব দলকে নির্বাচনে অংশ নেয়ার আহ্বান আসছে।
সংবিধান অনুযায়ী আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে ২৮ জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দশম সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে একাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি দশম সংসদের প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেই হিসেবে আগামী বছরের ২৮ জানুয়ারির পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই হিসাবে নভেম্বরের প্রথমভাগে তফসিল ঘোষণা করে ডিসেম্বরের শেষার্ধে অথবা জানুয়ারির প্রথমভাগে আগামী জাতীয় নির্বাচন হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ইত্তেফাককে বলেন, নির্বাচনের প্রস্তুতিমূলক কাজ প্রায় শেষ। সামনের দিনে কী কী ধরনের কাজ করতে হবে তার একটি চেকলিস্ট তৈরি করা হয়েছে। কমিশন সভায় প্রস্তুতির বিষয়গুলো তুলে ধরা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*