কেসিসির কাউন্সিলর পদেও বেশি জয় আওয়ামী লীগের | sampadona bangla news
সোমবার , ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কেসিসির কাউন্সিলর পদেও বেশি জয় আওয়ামী লীগের

সম্পাদনা অনলাইন : খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদেও বিএনপির চেয়ে বেশি জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৩টি কাউন্সিলর পদ পেয়েছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ৮টি ও বাকি ১০টিতে জয় পেয়েছে স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থীরা।
কাউন্সিলরদের মধ্যে অনেকেই পুনর্নিবাচিত হয়েছেন। এছাড়া বেশ কয়েকটিতে নতুন মুখ এসেছেন। এছাড়া সংরক্ষিত ১০টি নারী কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগের সাতজন ও স্বতন্ত্র তিনজন নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার ভোট গণনা শেষে বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করা হয়।
নবনির্বাচিত কাউন্সিলররা হলেন- ১ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ আব্দুর রাজ্জাক (আওয়ামী লীগ), ২ নম্বর ওয়ার্ডে সাইফুল ইসলাম (বিএনপি), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুস সালাম (আওয়ামী লীগ), ৪ নম্বর ওয়ার্ডে কবির হোসেন কবু মোল্লা (স্বতন্ত্র), ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মোহাম্মদ আলী (স্বতন্ত্র), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সামসুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স (বিএনপি), ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সুলতান মাহমুদ পিন্টু (বিএনপি),৮ নম্বর ওয়ার্ডে সাইদুর রহমান ডালিম (বিএনপি), ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মাহফুজুর রহমান লিটন (স্বতন্ত্র), ১০ নম্বর ওয়ার্ডে তালাত হোসেন কাউট (স্বতন্ত্র),  ১১ নম্বর ওয়ার্ডে মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ (আওয়ামী লীগ), ১২ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ মনিরুজ্জামান (স্বতন্ত্র), ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে খুরশিদ আহমেদ টোনা (আওয়ামী লীগ), ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোশারফ হোসেন (আওয়ামী লীগ), ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে আমিনুল ইসলাম মুন্না (আওয়ামী লীগ), ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে আনিসুর রহমান বিশ্বাস (স্বতন্ত্র), ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে হাফিজুর রহমান (স্বতন্ত্র), ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে হাফিজুর রহমান মনি (বিএনপি), ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে আশফাকুর রহমান কাঁকন (বিএনপি), ২০ নম্বর ওয়ার্ডে গাউসুল আজম (বিএনপি),  ২১ নম্বর ওয়ার্ডে সামসুদ্দিন মিয়া স্বপন (আওয়ামী লীগ), ২২ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল কালাম আজাদ বিকু (আওয়ামী লীগ), ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে ইমাম হাসান ময়না ( স্বতন্ত্র), ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে শমসের আলী মিন্টু (বিএনপি), ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে আলী আকবর টিপু (আওয়ামী লীগ), ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে গোলাম মওলা শানু (স্বতন্ত্র),  ২৭নং নম্বর ওয়ার্ডে জেড এ মাহমুদ ডন (আওয়ামী লীগ), ২৮নং নম্বর ওয়ার্ডে আজমল আহমেদ তপন (আওয়ামী লীগ),  ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে ফকির সাইফুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে এসএম মোজাফফর রশীদি রেজা (আওয়ামী লীগ) এবং ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে আরিফ হোসেন মিঠু (স্বতন্ত্র)। স্বতন্ত্র কাউন্সিলরদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থীরা রয়েছেন। এদের মধ্যে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাফিজুর রহমানকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয়।
এদিকে, ১০টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগের সাতজন ও স্বতন্ত্র তিনজন নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন: ১ নম্বর ওয়ার্ডে (১, ২ ও ৩) বর্তমান কাউন্সিলর এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরা আক্তার (বই), ২ নম্বর ওয়ার্ডে (৪, ৫ ও ৬) বর্তমান কাউন্সিলর এবং আওয়ামী লীগের সাহিদা বেগম (আনারস), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে (৭, ৮ ও ৯) বর্তমান কাউন্সিলর এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী রহিমা আক্তার হেনা (জীপগাড়ি), ৪ নম্বর ওয়ার্ডে (১১, ১২ ও ১৩) বর্তমান কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের পারভীন আক্তার (চশমা), ৫ নম্বর ওয়ার্ডে (৯, ১৪ ও ১৫) আওয়ামী লীগের মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু (আনারস), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে (১৬, ১৭ ও ১৮) আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ আমেনা হালিম (বেবী), ৭ নম্বর ওয়ার্ডে (১৯, ২০, ২৫ ও ২৬) বর্তমান কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহমুদা বেগম (মোবাইল), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে (২১, ২২ ও ২৩) আওয়ামী লীগের কনিকা সাহা (চশমা)। এছাড়া ৯ নম্বর ওয়ার্ডে (২৪, ২৭ ও ২৮) স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান কাউন্সিলর রুমা খাতুন (চশমা), ১০ নম্বর ওয়ার্ডে (২৯, ৩০ ও ৩১) আওয়ামী লীগের প্রার্থী লুৎফুন্নেসা লুৎফা (চশমা) এগিয়ে রয়েছেন।
উল্লেখ্য, ২৮৯টি কেন্দ্রের মধ্যে তিনটি কেন্দ্রের ভোট অনিয়মের কারণে স্থগিত করা হয়েছে। বাকি ২৮৬টি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*