যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের ব্যতিক্রমি অবস্থা

সম্পাদনা অনলাইন : চীন থেকে উৎপত্তি হলেও করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। আর যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন আফ্রো-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গরা। এমনটি জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, এই সপ্তাহের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো, ইলিনয়েস থেকে প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায় শহরগুলোতে ৬ হাজার ১শ জন করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি কৃষ্ণাঙ্গ।

শিকাগোর কর্মকর্তারা জানান, শহরটির মোট জনগোষ্ঠীর ৩০ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ। আর করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেক এবং মারা যাওয়া প্রায় ৭০ শতাংশই কৃষ্ণাঙ্গ।লুইজিনিয়া রাজ্যেও মোট জনগোষ্ঠীর প্রায় ৩২ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ। এখানেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা ৭০ শতাংশ আফ্রো-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গ জাতি। এছাড়া মিশিগানে মাত্র ১৩ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ বাস করলেও সেখানে করোনায় মারা যাওয়া ৪০ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ জাতির। যুক্তরাষ্ট্রের করোনার এপিসেন্টার হিসেবে পরিচিত নিউ ইয়র্কেও শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় কৃষ্ণাঙ্গদের মৃত্যুর হার বেশি।

বিশ্লেষকরা বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গরা কৃষ্ণাঙ্গদের চেয়ে বেশি সুযোগ সুবিধা ভোগ করায় তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি। অপরদিকে অবহেলিত কৃষ্ণাঙ্গরা শ্বাস কষ্ট, ডায়বেটিসের মত জটিল রোগে ভুগছে কারণ তাদের জন্য স্বাস্থ্য খাতে পর্যাপ্ত সুবিধা রাখা হয়নি।

এ বিষয়ে একসেস কমিউনিটি হেলথ নেটওয়ার্কের কর্মকর্তা ব্রায়ান ব্রাগ বলেন, আমরা এই ঐতিহাসিক বঞ্চনা তুলে ধরা জন্য কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছি।

ওয়ার্ল্ড ও মিটারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮৮৭ জন। মারা গেছেন ১৬ হাজার ৬৯৭ জন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *